যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম মুসলিম নারী বিচারকের মরদেহ উদ্ধার

ঢাকা, ১৩ এপ্রিল
ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম মুসলিম নারী বিচারক শিলা আবদুস সালামের (৬৫) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার ম্যানহাটনের হাডসন নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

শিলা আবদুস সালাম আপিল বিভাগের সহযোগী বিচারক ছিলেন। বুধবার সকালে হার্লিনের নিজ বাড়ি থেকে তিনি নিখোঁজ হন। পরে দুপুরে নদীতে তার লাশ পাওয়া যায়। নিউইয়র্ক পুলিশের হার্বার ইউনিট জানায়, স্থানীয় সময় দুপুর পৌনে ২টার দিকে হাডসন পার্কওয়ের কাছে ১৩২ নম্বর রাস্তার পাশে নদীতে ভাসমান অবস্থায় বিচারক শিলা আবদুস সালামের লাশ পাওয়া যায়। পরে তার স্বামী আবদুস সালাম লাশ শনাক্ত করেন।

শিলার দেহে দুর্বৃত্তদের হাতে খুন হওয়ার মতো কোনো চিহ্ন খুঁজে পাওয়া যায়নি। পুলিশের ধারণা, তিনি আত্মহত্যা করেছেন। এর পরও বিচারক শিলা আবদুস সালাম কীভাবে নদীতে গেলেন, পুলিশ তা খতিয়ে দেখার ঘোষণা দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে শিলা আবদুস সালাম ছিলেন প্রথম মুসলিম নারী বিচারক। আফ্রিকান-আমেরিকান নারী হিসেবে আবদুস সালামই প্রথম ২০১৩ সালে আপিল বিভাগের বিচারক হিসেবে নিয়োগ পান। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি এই দায়িত্বেই ছিলেন। এর আগে শিলা ১৫ বছর ম্যানহাটন সুপ্রিম কোর্টের বিচারক ছিলেন।

সেরানিউজ২৪/আই.জে

বয়স ৯৫, সাইকেল চালিয়ে ফ্রি চিকিৎসা দিচ্ছেন জাহিরন

ঢাকা, ১২ এপ্রিল
ডেস্ক: দীর্ঘ ৪৪ বছর ধরে বাইসাইকেল চালিয়ে গ্রামের অসহায় মানুষের স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে আসছেন এক নারী। বয়স তার ৯৫। কিন্তু উদ্যম, সাহস, কর্ম দক্ষতা একটুও কমেনি।

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার ভেলাবাড়ী ইউনিয়নের ভারত সীমান্ত ঘেঁষা তালুক দুলালী গ্রামের জহিরন বেওয়া। এ বয়সে বাড়ীর বারান্দায় কিংবা কোন গাছের ছায়ায় বসে নাতি-নাতনিদের রূপকথার গল্প শোনানো অথবা তাদের উচ্ছল খেলাধুলা দেখে সময় কাটানোর কথা। কিন্তু তা না করেই প্রতিদিন ছুটে বেড়াচ্ছেন গ্রামের পর গ্রাম মাইলের পর মাইল। কারো অসুস্থতার সংবাদ পেলেই নাওয়া-খাওয়া ভুলে বাইসাইকেলে চড়ে ছুটে যান সেই রোগীর বাড়িতে চিকিৎসা সেবা দিতে।

তালুক দুলালী গ্রামের মৃত সায়েদ আলীর স্ত্রী জহিরন বেওয়া। স্বামী মারা যান ১৯৬৮ সালে। এরপর শারীরিক ও মানুষিকভাবে ভেঙে পড়েন তিনি। তিন ছেলে আর দুই মেয়েকে নিয়ে তার সংসার। আট বছর আগে বড় ছেলে দানেশ আলী ৬৮ বছর বয়সে মারা যান। ছোট ছেলে তোরাব আলীর বয়স ৫৯। সংসারে এই সংগ্রামী নারী এখনো সচল, সজাগ আর কর্মউদ্যমী হয়ে বেঁচে আছেন।

সমাজের প্রচলিত রীতিনীতি ভেঙে ১৯৭৩ সালে জহিরন পরিবার পরিকল্পনার অধীনে স্বাস্থ্যসেবা ও পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ে ছয় মাসের প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। পরে চুক্তিভিত্তিক মাসিক মজুরিতে কাজে যোগ দেন। নিজ গ্রামসহ আশ-পাশের গ্রামগুলোতে সাইকেল চালিয়ে গ্রামবাসীদের স্বাস্থ্যসেবা দিতেন। ২শ থেকে ৩শ অবশেষে ৫শ টাকা মাসিক মজুরি পেয়ে ১০ বছর চাকরি করে অবসরে যান জহিরন।

চাকরি বাদ দিলেও অর্জিত অভিজ্ঞতা বাদ দেননি তিনি। তাই বাড়িতে বসে না থেকে আবারো গ্রামবাসীর স্বাস্থ্যসেবায় মনোযোগী হয়ে উঠেন জহিরন। এখনো কাজ করছেন হাসি মুখে। গ্রামের লোকজনের কাছে তার বেশ সুনাম রয়েছে। কেউবা জহিরন দাদি, কেউবা নানি আবার কেউবা জহিরন আপা বলে সম্বোধন করেন তাকে।

ভেলাবাড়ী গ্রামের স্কুলশিক্ষিকা রাবেয়া সুলতানা জানালেন, গেলো ৪৪ বছর ধরে জহিরন বেওয়াকে দেখছি বাই সাইকেল চালিয়ে গ্রামের পর গ্রাম মাইলের পর মাইল ঘুরে ঘুরে গ্রামের অসহায় মানুষগুলোকে স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে আসছেন।

জহিরন বলেন, আমি শুধু সাধারণ রোগ যেমন-জ্বর, মাথা ব্যথা, বমি শারীরিক দুর্বলতাসহ রোগের চিকিৎসা দিয়ে থাকি। এর জন্য আমাকে কোন টাকা দিতে হয় না। তবে আমি বাজারমূল্যে তাদের কাছে ওষুধ বিক্রি করি। এতে প্রতিদিন গড়ে দেড়শ’ টাকা আয় হয়।

তিনি বলেন, আদিতমারী উপজেলার ৩০টি গ্রামে দু’ হাজারের বেশি পরিবারের সঙ্গে রয়েছে আমার নিবিড় যোগাযোগ। আমি প্রতিদিন সাইকেল চালিয়ে কমপক্ষে ৭টি গ্রামে ৭০টি বাড়িতে যাই। তাদের খোঁজখবর নিই। তার দাবি, গেলো ৫০ বছরে তিনি কোন রোগে আক্রান্ত হননি। সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টি নারীর প্রতি অবিচার রোধ, শিক্ষা আর পছন্দানুযায়ী পেশা নির্বাচনের সুযোগ নিয়েও কাজ করছেন তিনি।

সেরানিউজ২৪/আই.জে

বখাটে নাইম’র শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

ঢাকা, ৩০ মার্চ
ডেস্ক: গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া নজরুল হক আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী জেমি আকতারের হামলাকারি বখাটে নাইম উদ্দিনকে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আজ বৃহস্পতিবার বিক্ষোভ মিছিল ও এক মানবন্ধনের কর্মসূচী পালন করে। স্থানীয় এলাকাবাসি এই মানববন্ধন কর্মসূচীর আয়োজন করে।
মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন, গাইবান্ধা নারী মুক্তি কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক নিলুফার ইয়াসমিন শিল্পী, জেলা ছাত্র ইউনিয়ন জেলা সংসদের সাবেক সাধারণ সম্পাদদক রানু সরকার, কঞ্চিপাড়া আঞ্চলিক শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক নাসির হোসেন, যুব সংগঠনের মতিয়ার রহমান, বাসদ মাকর্সবাদীর অফিজ উদ্দিন প্রমুখ। বক্তারা আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে বখাটে নাইম উদ্দিনকে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। উল্লেখ্য, ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের হোসেনপুরে ২৯ মার্চ বিকেলে স্কুল ছুটির পর জেমি আকতার বাড়ি আসার সময় বখাটে তার উপর হামলা করে।

সেরানিউজ২৪/আই.জে

যুক্তরাষ্ট্রে ‘সাহসী নারী’ পুরস্কার নিলেন ঝালকাঠির শারমিন

ঢাকা, ৩০ মার্চ
ডেস্ক : মার্কিন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পের হাত থেকে ‘সাহসী নারী’র পুরস্কার নিয়েছেন ঝালকাঠির মেয়ে শারমিন আক্তার। গতকাল বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক অনুষ্ঠানে এ পুরস্কার গ্রহণ করেন শারমিন। নিজের বাল্য বিয়ে ঠেকিয়ে দেয়ায় বাংলাদেশের এই কিশোরীকে ‘সাহসী নারী’র পুরস্কার দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের হোয়াইট হাউস।

সারা বিশ্বে শান্তি ন্যায়বিচার, মানবাধিকার, লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়নের পক্ষে কাজ করার স্বীকৃতি হিসাবে শারমিন ছাড়াও এ বছর আরো ১২টি দেশের ১২ জন নারীকে এই পুরস্কার দেয়া হয়। এদের মধ্যে রয়েছেন মানবাধিকার কর্মী, এনজিও কর্মী, রাজনীতিবিদ, ব্লগার থেকে শুরু করে সৈনিক পর্যন্ত।

শারমিন আলোচনায় এসেছিলেন গত বছর নভেম্বর মাসে। নবম শ্রেণিতে পড়ার সময় মাত্র ১৫ বছর বয়সে শারমিনের মা তাকে বিয়ে দেয়ার আয়োজন করেছিল। স্কুলের বন্ধু, সাংবাদিক এবং থানা পুলিশের সহায়তা নিয়ে শারমিন আকতার মায়ের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছিলেন।
বিয়েতে রাজী না হওয়ায় তার মা তাকে পাত্রের সঙ্গে কয়েকদিন একটি কক্ষে আটকে রেখেছিলেন বলে অভিযোগ ওঠে। এক পর্যায়ে বন্দিদশা থেকে পালিয়ে এসে মায়ের বিরুদ্ধেই মামলা ঠুকে দেন শারমিন।

এ ব্যাপারে শারমিন আক্তার বলেছেন, ‘আমি বিয়ের জন্য উপযুক্ত বয়সে ছিলাম না। এই কিশোরী বয়সে একজন বয়স্ক লোকের সঙ্গে আমার সংসার করা সম্ভব ছিল না। তখন আমাকে আটকিয়ে রেখে শারীরিক এবং মানসিকভাবে নির্যাতন করা হচ্ছিল। কিন্তু আমি এই পরিস্থিতি থেকে আমার জীবনকে বাঁচাতে মায়ের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছিলাম।’ শারমিনের দায়ের করা মামলায় তার মা এবং কথিত পাত্রকে পুলিশ গ্রেফতার করে। শারমিন এখন রাজাপুর পাইলট স্কুলের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। তিনি বড় হয়ে আইনজীবী হতে চান এবং বাল্যবিয়ের বিরুদ্ধে তার প্রচারণা অব্যাহত রাখতে চান।

সেরানিউজ২৪/আই.জে

অতিরিক্ত ক্লাসের নামেই বছরজুড়ে চলে ৮ শিক্ষকের ধর্ষণ!

ঢাকা, ২৭ মার্চ
ডেস্ক : ভারতের রাজস্থান রাজ্যে লোমহর্ষক এক ধর্ষণের অভিযোগ করেছে ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত ১৩ বছরের এক কিশোরী। মেয়েটি অভিযোগ করেছে, রাজ্যের একটি বেসরকারি স্কুলে সে পড়াশোনা করত। ২০১৫ সালে তারই আট শিক্ষক এক বছর ধরে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেছে। শুধু তাই নয়, পাষণ্ড শিক্ষকেরা ধর্ষণের দৃশ্য মোবাইলেও ধারণ করে। একইসঙ্গে পুরো পরিবারকে ব্লাকমেইল করা হয়। এই ঘটনা কাউকে না জানানোর হুমকিও দেন ওই শিক্ষকরা। এক বছর ধরে চলে ওই কিশোরীর ওপর পাশবিক নির্যাতন।

রবিবার (২৬ মার্চ) এনডিটিভির খবরে বলা হয়, মেয়েটিকে অভিযুক্ত শিক্ষকরা স্কুল ছুটি হওয়ার পরও অতিরিক্ত ক্লাস নেয়ার নাম করে জোরপূর্বক থাকতে বাধ্য করত। অতঃপর শ্রেণিকক্ষে নিয়ে বিবস্ত্র করে তারা পালাক্রমে ধর্ষণ করত। মেয়েটিকে ব্লাকমেইল করতে মোবাইলে ধর্ষণের দৃশ্যও ধারণ করা হয়।

এ ঘটনায় শনিবার ছাত্রীর বাবা এফআইআর দায়ের করেছেন। বাবার অভিযোগ, দেড় বছর আগে ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত হয় ওই কিশোরী। ৮ শিক্ষক তাকে এক বছরের বেশি সময় ধরে লাগাতার ধর্ষণ করেছে। ধর্ষণের ফলে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে শিক্ষকরা তার গর্ভধারণ বন্ধের জন্য ওষুধ দিয়েছিল।

থানা ও হাসপাতালে না যাওয়ার জন্য তাদের এতদিন হুমকি দেয়া হয়েছে বলেও এফআইআরে উল্লেখ করেছেন নির্যাতিত শিশুর বাবা। বর্তমানে শিশুটি চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানানো হয়। এ খবর দ্রুত চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে রাজস্থান পঞ্চায়েত রাজ মিনিস্টার রাজেন্দ্র রাঠোর বলেছেন, এটা এক হতাশাজনক খবর। অত্যন্ত বেদনাদায়ক বিষয়। আমরা সব তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা করছি।

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, ছাত্রীর অভিযোগের সত্যটা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বিষয়টি জানা সত্ত্বেও ছাত্রীর পরিবার কেন আগেই পুলিশে অভিযোগ করেননি তা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে। তবে ওই ছাত্রীর বাবার দাবি, তিনি ২০১৬ সালের শেষের দিকে এই ঘটনাটি জানতে পারেন। কাউকে জানালে তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়েছিল সে কারণেই তিনি এই ঘটনার কথা পুলিশে জানাননি।

বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করেছেন রাজস্থানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী গুলাব সিংহ কাটারিয়া। তিনি বলেন, এ দেশে যখন তখন যে কেউ কারও নামে অভিযোগ জানাতেই পারেন। এই ঘটনায় দু’টি অভিযোগ দায়ের হয়েছে। একটি ওই ছাত্রীর পরিবার এবং অন্যটি করেছেন শিক্ষকেরা। তবে তদন্তের রিপোর্ট অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ছাত্রীটির চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন রাঠোর।

সেরানিউজ২৪/আই.জে

প্রতিটি শিশুর প্রাথমিক শিক্ষার অধিকার নিশ্চিত করতে হবে

ঢাকা, ২০ মার্চ
ডেস্ক: নওগাঁ-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য বাবু সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি দেশের প্রাথমিক শিক্ষাব্যবস্থার প্রতি গুরুত্ব দিয়ে বলেছেন, একটি জাতি দাঁড়িয়ে থাকে শিক্ষাব্যবস্থার উপর। শিক্ষাব্যবস্থা দাড়িয়ে থাকে প্রাথমিক শিক্ষার উপর। শিশুদের পাঠদান শুধুই শ্রেণী কক্ষের মধ্যে সীমবদ্ধ রাখলে চলবে না। একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি প্রযুক্তিগত শিক্ষা, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে শিশুদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে। গতকাল রবিবার বেলা ১১টায় প্রাথমিক পর্যায়ে রাজশাহী বিভাগের বিভাগীয় শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নওগাঁর সাপাহার মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২০১৬ ইং সালের জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ৬৯ জন কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা এবং বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগীতায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, দেশের প্রতিটি শিশুর প্রাথমিক শিক্ষার অধিকার নিশ্চিত করতে সবাইকে অধীক সচেতন হতে হবে। সরকার সমাজের ঝরে পড়া শিশুদের প্রাথমিক শিক্ষা বাধ্যতামূলক ও বিনা খরচে শিক্ষা লাভের সুযোগ নিশ্চিত করেছে।
মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আয়োজনে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা এবং বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগীতায় সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য আলহাজ্ব মোতাহার হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য প্রদান করেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শামসুল আলম শাহ চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফাহাদ পারভেজ বসুনীয়া, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শহীদুল আলম, পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাজেদুল আলম, মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমিরুল ইসলাম প্রমুখ। এ সময় সেখানে বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা, শিক্ষার্থী, অবিভাবকবৃন্দ সহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

সেরানিউজ২৪/আই.জে

‘বলেছিলাম বাঁচতে দে… জীবন নষ্ট করিস না (ভিডিওসহ)

ঢাকা ১৭ মার্চ
ডেস্ক: বৃহস্পতিবার (১৬ মার্চ) রাজধানীর সেন্ট্রাল রোডে যমুনা ব্যাংকের কর্মকর্তা আরিফুন্নেসা আরিফা ছুরিকাঘাতের শিকার হন নিজ বাসার দরজায় সামনে। পরে হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় আরিফার সাবেক স্বামী ফখরুল ইসলাম রবিনকে একমাত্র আসামি করে মামলা করেছে নিহত আরিফার ভাই আবদুল্লাহ আল আমিন। শুক্রবার সকালে কলাবাগান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়াসির আরাফাত বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মামলায় ফখরুলকে একমাত্র আসামি করা হয়েছে। থানা-পুলিশ, ডিবি ও র্যা ব ঘটনাটি তদন্ত করছে। ফখরুলকে শিগগিরই গ্রেপ্তার করা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। https://www.youtube.com/watch?v=IivLlHeb3Yc

শুক্রবার ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এস আই বাচ্চু মিয়া জানান, সন্ধ্যার দিকে লাশ ময়না তদন্ত শেষে স্বজনদের কাছে হন্তান্তর করা হয়েছে। আরিফা হত্যার পরে খান (এফআইরবিন) নামের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে নিহতের স্বজন বন্ধুদের উদ্দেশ্যে সাবেক স্বামী ফখরুল ইসলাম রবিন নিজের ফেসবুক ওয়ালে একটি স্ট্যাটাস পাওয়া যায়।

তার ওই স্ট্যাটাসটি তিনি লেখেন, ‘বলেছিলাম বাঁচতে দে… জীবন নষ্ট করিস না… এখন বুজো? অনিক, তানজিনা, শিল্পী, রিয়াদ, পলাশ, মাসুদ দেখা হবে মনে রাখিস’।

সেরানিউজ২৪/আই.জে