পিলখানা হত্যা : হাইকোর্টের রায় যে কোনো দিন

ঢাকা, ১৩ এপ্রিল
ডেস্ক : পিলখানা হত্যা মামলায় ১৫২ জনের ডেথ রেফারেন্স (মৃত্যুদণ্ড অনুমোদন) ও দণ্ডাদেশের রায়ের বিরুদ্ধে আসামিদের আপিল ও খালাসের রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিলের ওপর যে কোনো দিন রায় দেবেন হাইকোর্ট।

আজ বৃহস্পতিবার শুনানি শেষে বিচারপতি মো. শওকত হোসেনের নেতৃত্বাধীন ৩ সদস্যের হাইকোর্ট বেঞ্চ মামলাটি রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ (সিএভি) রাখেন। বেঞ্চের অপর দুই সদস্য হলেন- বিচারপতি মো. আবু জাফর সিদ্দিকী ও বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জাহিদ সরোয়ার কাজল, আসামিদের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট এম আমিনুল ইসলাম। এর আগে ২০১৫ সালে পিলখানা হত্যাকাণ্ড মামলায় বিচারিক আদালতে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের শুনানির জন্য বৃহত্তর বেঞ্চ গঠন করা হয়। এই বেঞ্চে ৩৭০ কার্যদিবস আসামিদের আপিল ও ডেথ রেফারেন্সের ওপর শুনানি হয়। অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমসহ বিভিন্ন আইনজীবী শুনানিতে অংশ নেন।
পিলখানা হত্যা : হাইকোর্টের রায় যে কোনো দিন

২০০৯ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি তৎকালীন বিডিআরের সদর দফতরে পিলখানা ট্র্যাজেডিতে ৫৭ সেনা কর্মকর্তাসহ ৭৪ জন প্রাণ হারান। ওই বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি লালবাগ থানায় হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে দুটি মামলা হয়। পরে মামলা দুটি নিউমার্কেট থানায় স্থানান্তরিত হয়। বিচার হয় ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারসংলগ্ন আলীয়া মাদ্রাসা মাঠসংলগ্ন অস্থায়ী এজলাসে। বিচার শেষে ঢাকা মহানগর তৃতীয় বিশেষ আদালতের বিচারক মো. আখতারুজ্জামান ২০১৩ সালের ৫ নভেম্বর রায় ঘোষণা করেন।

রায়ে বিডিআরের প্রাক্তন ডিএডি তৌহিদসহ ১৫২ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়। এ ছাড়া বিএনপি দলীয় প্রাক্তন এমপি নাসিরউদ্দিন আহমেদ পিন্টু (প্রয়াত) ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা তোরাব আলীসহ ১৬০ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ২৫৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয়া হয়। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ২৭৭ জনকে খালাস দেয়া হয়।

রায়ের পর ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে আসে। রায়ের পর বিভিন্ন সময়ে আসামিরা দণ্ডাদেশের বিরুদ্ধে আপিল ও জেল আপিল করেন। এর মধ্যে ৬৯ জনকে খালাসের রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল করেন। গুরুত্বপূর্ণ এ মামলার শুনানির জন্য সুপ্রিম কোর্ট বিশেষ উদ্যোগ নেন। বিশেষ ব্যবস্থায় এই মামলার পেপারবুক তৈরি করা হয়।

সেরানিউজ২৪/আই.জে

পারিশ্রমিক নিয়ে সোচ্চার সোনাক্ষি

ঢাকা, ১৩ এপ্রিল
ডেস্ক : ‘দাবাং’ ছবি দিয়ে অভিনয়ের দুনিয়ায়ে পা রেখেছিলেন সোনাক্ষি সিনহা। এরপর একে একে ‘দাবাং ২’, ‘তেভার’, ‘আর রাজকুমার’, ‘রাউডি রাধোড়’, ‘আকিরা’, ‘লুটেরা’ মতো দর্শক জনপ্রিয় ছবি উপহার দিয়েছেন। সামনে তার নতুন ছবি ‘নূর’ মুক্তির অপেক্ষায়। সেখানে সাংবাদিকের চরিত্রে দেখা যাবে তাকে। পর্দার স্পষ্টবাদী সোনাক্ষি এবার বাস্তব জীবনেও একই ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন।

অতীতে বলিউডের পারিশ্রমিক নিয়ে সরব হয়েছিলেন আনুশকা শর্মা, শাহরুখ খান, রাধিকা আপ্তে, কারিনা কাপুর, কঙ্গনা রানাউতরা। এবার একই সুর শোনা গেল সোনাক্ষির গলাতেও।

সোনাক্ষির দাবি, যদি একটি ছবি নিজের কাঁধে নিয়ে বের করে দিতে পারেন বলিউড অভিনেত্রীরা, তাহলে কেন তারা কম পারিশ্রমিকে কাজ করবেন নায়কদের তুলনায়। তার প্রশ্ন, একজন অভিনেত্রী যখন তার কাঁধে সম্পূর্ণ দায়িত্ব নিয়ে একটি ছবি হিট করাচ্ছেন, বক্স অফিস থেকে ভালো রিটার্ন আসছে, তাহলে পারিশ্রমিকের সময় ফারাক কেন?

সেরানিউজ২৪/আই.জে

রাতে পাঞ্জাবের বিপক্ষে মাঠে নামবে কলকাতা

ঢাকা, ১৩ এপ্রিল
ডেস্ক : এবারের আইপিএলে এখন পর্যন্ত ২ ম্যাচ খেলে ফেলেছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। শ্রীলঙ্কা সফর শেষে কলকাতার প্রথম ম্যাচের দিন দলের সঙ্গে যোগ দেয়া সাকিব আল হাসানের এখনো মাঠে নামা হয়নি। আজ কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে বাংলাদেশি অলরাউন্ডারকে একাদশে রাখবে কলকাতা?

এই আইপিএলে আজই প্রথম ঘরের মাঠে খেলবে কলকাতা। কলকাতার ইডেন গার্ডেনে দিনের একমাত্র ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায়। টিভিতে সরাসরি দেখাবে সনি সিক্স ও সনি ইএসপিএন চ্যানেল। ১০ উইকেটের রেকর্ড জয়ে আইপিএল অভিযান শুরু করেছিল কলকাতা। তবে গৌতম গম্ভীরের নেতৃত্বাধীন দলটি দ্বিতীয় ম্যাচেই পায় হারের তিক্ত স্বাদ।

মুম্বাইয়ের বিপক্ষে ওই ম্যাচে দুঃস্বপ্ন হয়ে আসে আবার ক্রিস লিনের চোট। ফিল্ডিংয়ের সময় কাঁধে চোট পেয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য মাঠের বাইরে ছিটকে গেছেন প্রথম ম্যাচে ৪১ বলে অপরাজিত ৯৩ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলা অস্ট্রেলিয়ান এই ব্যাটসম্যান। আজ তাই সাকিবের একাদশে থাকার প্রবল সম্ভাবনা আছে।

গত আইপিএলে কলকাতার কাছে হোম আর অ্যাওয়ে- দুটি ম্যাচই হেরেছিল পাঞ্জাব। ২ দলের শেষ ৭ ম্যাচেই পাঞ্জাবকে হারিয়েছে কলকাতা। সব মিলিয়ে পাঞ্জাবের বিপক্ষে কলকাতার জয়-পরাজয়ের রেকর্ডটা ১৩-৬। যেটি ইডেন গার্ডেনে ৬-২।

সেরানিউজ২৪/আই.জে

যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম মুসলিম নারী বিচারকের মরদেহ উদ্ধার

ঢাকা, ১৩ এপ্রিল
ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম মুসলিম নারী বিচারক শিলা আবদুস সালামের (৬৫) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার ম্যানহাটনের হাডসন নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

শিলা আবদুস সালাম আপিল বিভাগের সহযোগী বিচারক ছিলেন। বুধবার সকালে হার্লিনের নিজ বাড়ি থেকে তিনি নিখোঁজ হন। পরে দুপুরে নদীতে তার লাশ পাওয়া যায়। নিউইয়র্ক পুলিশের হার্বার ইউনিট জানায়, স্থানীয় সময় দুপুর পৌনে ২টার দিকে হাডসন পার্কওয়ের কাছে ১৩২ নম্বর রাস্তার পাশে নদীতে ভাসমান অবস্থায় বিচারক শিলা আবদুস সালামের লাশ পাওয়া যায়। পরে তার স্বামী আবদুস সালাম লাশ শনাক্ত করেন।

শিলার দেহে দুর্বৃত্তদের হাতে খুন হওয়ার মতো কোনো চিহ্ন খুঁজে পাওয়া যায়নি। পুলিশের ধারণা, তিনি আত্মহত্যা করেছেন। এর পরও বিচারক শিলা আবদুস সালাম কীভাবে নদীতে গেলেন, পুলিশ তা খতিয়ে দেখার ঘোষণা দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে শিলা আবদুস সালাম ছিলেন প্রথম মুসলিম নারী বিচারক। আফ্রিকান-আমেরিকান নারী হিসেবে আবদুস সালামই প্রথম ২০১৩ সালে আপিল বিভাগের বিচারক হিসেবে নিয়োগ পান। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি এই দায়িত্বেই ছিলেন। এর আগে শিলা ১৫ বছর ম্যানহাটন সুপ্রিম কোর্টের বিচারক ছিলেন।

সেরানিউজ২৪/আই.জে

আজ চৈত্র-সংক্রান্তি: ঋতুরাজ বসন্তের বিদায়

ঢাকা, ১৩ এপ্রিল
ডেস্ক : ‘মুছে যাক গ্লানি, মুছে যাক জরা/ অগ্নিস্নানে সূচি হোক ধরা’ বিদায়ী সূর্যের সামনে আজ এ প্রণতি রাখছে বাঙালি। আজ ৩০ চৈত্র ১৪২৩। বাংলা বছরের শেষদিন। শেষদিন আজ ঋতুরাজ বসন্তেরও। আজ চৈত্র সংক্রান্তি। বাংলা বছরের শেষ দিন হওয়ায় চৈত্র মাসের শেষ এ দিনটিকে বলা হয় ‘চৈত্র সংক্রান্তি’। বাংলার বিশেষ লোকজ উৎসব এই চৈত্র সংক্রান্তি।

চিরায়ত অসাম্প্রদায়িক বাঙালির কাছে চৈত্র সংক্রান্তি এক বৃহত্তর লোক উৎসবে পরিণত হয়েছে। হিন্দুরা এ দিনটিকে অত্যন্ত একটি পুণ্যদিন বলে মনে করে। জানা যায়, সাধারণত এই বসন্তকালে বাসন্তী দেবী ও অর্ন্নপূর্ণাদেবীর পূজা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। হিন্দু পঞ্জিকা মতে দিনটিকে গণ্য করা হয় মহবিষুব সংক্রান্তি নামে। হিন্দুরা পিতৃপুরুষের তর্পন করে থাকে, নদীতে বা দিঘিতে পুণ্যস্নান করে থাকে। নানা আচার-অনুষ্ঠান আর হালখাতার প্রস্তুতি নেওয়ার দিন আজ। সূর্যাস্তের সঙ্গে সঙ্গে কালের অতল গর্ভে হারিয়ে যাবে আরও একটি বছর। বাঙালি বরণ করে নেবে বাংলা নববর্ষ ১৪২৪ কে।

চৈত্র সংক্রান্তি বাংলার লোক সংস্কৃতির এমন এক অনুষঙ্গ যা সর্বজনীন উৎসবের আমেজে বর্ণিল। বছরের শেষদিনে যেমন নানা আয়োজনে বর্ষকে বিদায় জানানো হয় তেমনি চৈত্রের শেষ দিনে বৈশাখ বন্দনায় মেতে ওঠে বাঙালি। নব আনন্দ বাজুক প্রাণে, এই মঙ্গল কামনার মাধ্যমে বিগত বছরের গ্লানি মুছে ফেলতে আবহমান বাঙালি আজ মেতে উঠবে চৈত্র সংক্রান্তির উৎসবে।

চৈত্র সংক্রান্তির প্রধান উৎসব : বাংলা উইকিপিডিয়া সূত্রমতে, চৈত্র থেকে বর্ষার প্রারম্ভ পর্যন্ত সূর্যের যখন প্রচন্ড উত্তাপ থাকে তখন সূর্যের তেজ প্রশমন ও বৃষ্টি লাভের আশায় কৃষিজীবী সমাজ বহু অতীতে চৈত্র সংক্রান্তির উদ্ভাবন করেছিল বলে জানা যায় ইতিহাস ঘেটে।

চৈত্র সংক্রান্তির প্রধান উৎসব চড়ক। চড়ক গাজন উৎসবের একটি প্রধান অঙ্গ। এই উপলক্ষে একগ্রামের শিবতলা থেকে শোভাযাত্রা শুরু করে অন্য শিবতলায় নিয়ে যাওয়া হয়, একজন শিব ও একজন গৌরী সেজে নৃত্য করে এবং অন্য ভক্তরা নন্দি, ভৃঙ্গী, ভূত-প্রেত, দৈত্যদানব প্রভৃতি সেজে শিব-গৌরীর সঙ্গে নেচে চলে। এ সময়ে শিব সম্পর্কে নানারকম লৌকিক ছড়া পাঠ করা হয় যাতে শিবের নিদ্রাভঙ্গ থেকে শুরু করে তার বিয়ে, কৃষিকর্ম ইত্যাদি বিষয় উল্লেখ থাকে।

এই মেলাতে সাধারণত শূলফোঁড়া, বানফোড়া ও বড়শিগাঁথা অবস্থায় চড়ক গাছের ঘোরা, আগুনে হাঁটা প্রভৃতি সব ভয়ঙ্কর ও কষ্টসাধ্য দৈহিক কলাকৌশল দেখানো হতো। সময়ের পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে এই ধরণের খেলা একেবারেই কমে গেছে। শাস্ত্র ও লোকাচার অনুসারে এইদিনে স্নান, দান, ব্রত, উপবাস প্রভৃতি ক্রিয়াকর্মকে পূণ্যজনক বলে মনে করা হয়। বাঙালী যে দিন চৈত্র সংক্রান্তি পালন করে থাকে সেদিন অদিবাসী সম্প্রদায় পালন করে থাকে তাদের বর্ষ বিদায় ও বর্ষবরণ অণুষ্ঠান-বৈসাবী।

চৈত্র সংক্রান্তিতে দেশজুড়ে এখন চলছে নানা ধরনের মেলা, উৎসব। হালখাতার জন্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সাজানো, লাঠিখেলা, গান, আবৃত্তি, সঙযাত্রা, রায়বেশে নৃত্য, শোভাযাত্রাসহ নানা অনুষ্ঠান আর ভূত তাড়ানোর মধ্য দিয়ে উদযাপিত হবে চৈত্র সংক্রান্তি। আমাদের লোকজ সংস্কৃতির যা কিছু সত্য, সুন্দর, শুভ ও শুচি তা টিকে থাকুক অনন্তকাল-এই হোক চৈত্র সংক্রান্তির প্রার্থনা। জয়তু চৈত্র সংক্রান্তি ১৪২৩।

সেরানিউজ২৪/আই.জে

দেশবাসীকে নববর্ষের উপহার দিলাম : প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা, ১৩ এপ্রিল
ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেছেন, নববর্ষের প্রাক্কালে হাতিরঝিলে নির্মিত অত্যাধুনিক অ্যাম্পিথিয়েটার ও ডিজিটাল মিউজিক্যাল ড্যান্সিং ওয়াটার ফাউন্টেন ঢাকাবাসী তথা দেশবাসীর চিত্ত-বিনোদনের জন্য নববর্ষের উপহার হিসেবে দিলাম।

আজ বৃহস্পতিবার গণভবনে এক অনুষ্ঠান থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ দুটি স্থাপনার উদ্বোধন করেন। শেখ হাসিনা বলেন, ‘যারা টেলিভিশনে বা ফেইসবুক লাইভে এই অনুষ্ঠান দেখছেন, তাদের সবাইকে বাংলা নতুন বছরের আগাম শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।’

হাতিরঝিলে মুক্তমঞ্চ ও ভাসমান ফোয়ারকে দেশবাসীর জন্য ‘নববর্ষের উপহার’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি মানুষের চিত্ত বিনোদনের ব্যাবস্থা করতেও আমাদের সরকার আন্তরিক।’ এই মিউজিক্যাল ড্যান্সিং ফাউন্টেন দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে ‘সবচেয়ে বড়’ বলে অনুষ্ঠানে দাবি করেন হাতিরঝিল প্রকল্পের পরিচালক মেজর জেনারেল আবু সাঈদ মো. মাসুদ।

এ অনুষ্ঠানে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবিরোধী কার্যক্রম ও উন্নয়ন কর্মকাণ্ড নিয়ে ভিডিও কনফারেন্সে ময়মনসিংহ বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। মুখ্য সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন সেনাপ্রধান জেনারেল আবু বেলাল মো. শফিউল হক। অন্যদের মধ্যে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন এবং গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

সেরানিউজ২৪/আই.জে

হাসপাতালে ভর্তি শাকিব খান

ঢাকা, ১৩ এপ্রিল
ডেস্ক: জনপ্রিয় চিত্রনায়ক শাকিব খান অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। আজ (১৩ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২টায় তাকে ধানমন্ডির ল্যাব এইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নির্মাতা শামীম আহাম্মেদ রনী জানান, আগে থেকেই লিভারের সমস্যায় ভুগছিলেন শাকিব খান। এর মধ্যে যোগ হয়েছে কয়েকদিনের মানসিক চাপ, অনিয়ম। সব মিলিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন শাকিব খান। ক’দিন ধরে শাকিব খান-অপু বিশ্বাসের দ্বন্দ্ব নিয়ে তোলপাড় চলছে দেশজুড়ে। শাকিবের নানামুখী বক্তব্যে সমালোচনা তৈরি হয়।

এদিকে শাকিব খান অসুস্থ হয়ে পড়ায় ‘রংবাজ’ ছবির কাজ ঝুলে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। শুক্রবার (১৪ এপ্রিল) মহরতের মাধ্যমে এর দৃশ্যধারণ হওয়ার কথা। ছবিটিতে শাকিবের নায়িকা বুবলী শবনম।
সেরানিউজ২৪/আই.জে